This time, AL- QUIDA TARGETS BANGLADESH.

This time Bangladesh

Al Quida published a YouTube video where they threat Bangladesh. In the video they called jihad in Bangladesh due to safe the Islamic leaders those are suspected as 1971 war crime criminal and to utilise dark Islamic philosophy.

The present leader of Al Quida Shaykh Ayman al Zawahiri announce this threat yesterday.

For details :

http://bdnews24.com/bangladesh/2014/02/15/al-qaeda-chief-s-intifada-call-in-bangladesh 

Jamaat -E- Islam and Hefajot -E- Islam are not any more political party in Bangladesh but its true that they are band and now mobilizing as Islamic terrorist groups. Jammat -E-Islam and Hefajot-E-Islam now are the source of Al Quida therefore today Bangladesh in threat toward al Quida. In Shaykh Ayman al Zawahiri video they used বাঁশেরকেল্লা – Basherkella blog logo and Hefajot & Jamaat Islam Videos.

Besides, they notify the on-line blogger and Gonojagoron Moncho and Shahabag protester. Now question is that Al Quida does’t know more details about blogger, Gonojagoron Moncho and Shahabag Protest but how they able to know about all of these staff and how  they used the video and footage of Jamaat and Hefajot Islam. What Does It Mean ?

It means that these two Islamic Groups are now the source of Al Quida. They are planning to make Bangladesh  like Afghanistan and Pakistan where they able to utilise the dark Islamic terrorist Philosophy.

Today is the day when the blogger Rajib Hayder killed by Jamaat Shibir terrorist just one year before and Gonojagoron Moncho create a record by doing non violence candle protest in 14/02/2013 due to inform the war crime tribunal that we want capital panisment  for Kadder Mollah and for rest suspectors.

How it possible that after one year later Al Quida through a threat on 15 February 2014 just between 14 February candle protest and 16 February Blogger Rajib Hyder murder 2013.

Summary :

14 February candle protest 2013.

Al Quida through a threat on 15 February 2014.

16 February Blogger Rajib Hyder murder 2013.

The upper summary mention that Al Quida, Jamaat-E-Islam and Hefajot-E-Islam are planning & working together due to establish dark Islam terror Philosophy that are totally risky and not safety for Minority and for Republic of Bangladesh. Its the final time be alert each and everyone and destroy completely Jamaat and its relevant groups. Safe democracy and our Beautiful mother land one who birth us. Open your mouth talk against Al Quida, Jamaat-E-Islam and Hefajot-E-Islam.

Remember the speech of  sheikh Mujibur Rahman 7th March, 1971

http://www.youtube.com/watch?v=J9vUulq4tZI

And be ready to be a freedom fighter and to fight against Al Quida and their source Jamaat-E-Islam and Hefajot-E-Islam.

Author,

Blog: our71bd/bobbyjosephpereira.

 

Advertisements

গণজাগরণ মঞ্চের নতুন কর্মসূচী ঘোষণা/Ganajagarana theater announced a new program.

সারাদেশে জামায়াত-শিবির সন্ত্রাসীদের অব্যাহত তান্ডবের প্রতিবাদে গণজাগরণ মঞ্চের সংবাদ সম্মেলন

উপস্থিত প্রিয় সাংবাদিক ভাই ও বোনেরা, আসসালামু আলাইকুম।Image

আপনারা জানেন, রাজনৈতিক কর্মসূচি পালনের ছদ্মাবরণে গত ২৬ অক্টোবর সন্ধ্যা থেকে আবার নতুন করে সারা দেশে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার মানুষদের উপর শুরু হয়েছে জঘন্য হামলা।

গণজাগরণ মঞ্চ লক্ষ্য করেছে, রাজনৈতিক কর্মসূচির আড়ালে যুদ্ধাপরাধীদের লালিত সন্ত্রাসীরা মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচার সংশ্লিষ্ট ব্যাক্তিদের বাসভবনেও হামলা করেছে। কাদের মোল্লার আপীলের রায় প্রদানকারী সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি এস কে সিনহা, আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনালের চিফ প্রসিকিউটর গোলাম আরিফ টিপু ও প্রসিকিউটর তুরিন আফরোজের বাড়িতে হামলা করা হয়েছে। এমনকি প্রধান বিচারপতির বাসভবনের সামনে হাত বোমা বিস্ফোরণের চেষ্টা করা হয়। এছাড়া আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের গেইটেও হাত বোমা বিস্ফোরণ করেছে সন্ত্রাসীরা। এসব সহিংসতা স্পষ্টভাবেই বিচার বিভাগের উপর আঘাত করার ঘৃন্য অপ তৎপরতা।

জামায়াত শিবিরের সন্ত্রাসীরা কুখ্যাত যুদ্ধাপরাধী দেলওয়ার হোসেইন সাঈদীর মামলার সাক্ষী বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহবুবুল আলম ও তাঁর পরিবারকে হত্যার উদ্দেশ্যে বাড়িতে ঢুকে তান্ডব চালিয়েছে। এদের আক্রমনের প্রতিক্রিয়ায় মারা গেছেন মাগুরা জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা খান আলী রেজা রাজা।

এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন ‘গণভবন’ এর সামনে, নির্বাচন কমিশনের সামনে ও বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টির অফিসের সামনে সহ সারাদেশে অসংখ্য সরকারি, বেসরকারি অফিস এবং রাজনৈতিক কার্যালয়ে বোমা ও অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে।

এমনকি একাত্তর টিভি, দেশ টিভি, মোহনা টিভি, গাজী টিভিসহ বেশকিছু গণমাধ্যমের অফিসে বোমা নিপে করা হয়েছে। চ্যানেল টোয়েন্টিফোর, এসএ টিভিসহ বেশ কয়েকটি টেলিভিশন চ্যানেলের গাড়ী ল্য করেও বোমা ছুঁড়েছে জামাত শিবিরের সন্ত্রাসীরা। হামলা করা হয়েছে সংবাদকর্মীদের উপর। বেসরকারী টিভি চ্যানেল আরটিভি’র একজন সাংবাদিক মারাত্বক আহত হয়েছেন, গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন একাত্তর টেলিভিশনের সাংবাদিক জাকারিয়া বিপ্লব।

হামলার ধরন থেকে এটা এখন স্পষ্ট যে, হামলাকারীদের প্রধান ল্যবস্তু বিচার বিভাগ, যারা কিনা সফলতার সাথে বাংলাদেশে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করে যুদ্ধপরাধের বিচারের মাধ্যমে সারা দুনিয়াতে নজির স্থাপন করেছেন এবং মুক্তিযুদ্ধের ৪২ বছর পর দায় শোধের মাধ্যমে জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করার পবিত্র দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিয়েছেন।

আমরা মনে করি রাজনৈতিক কর্মসূচি বাস্তবায়নের আড়ালে দেশের চলমান মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ী ব্যক্তিদের বিচার কার্যক্রম বিঘ্নিত করার ষড়যন্ত্র থেকে এসব হামলা করা হচ্ছে।

এসব হামলার ঘটনায় গণজাগরণ মঞ্চ উদ্বেগ প্রকাশ করছে এবং প্রতিটি হামলার তীব্র নিন্দা ও দায়ী ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছে।

সুপ্রিয় বন্ধুগন,
সারাদেশের এই তান্ডব কোনো বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। একাত্তরের হানাদার এবং তাদের উত্তরসূরিদের কাছ থেকে এসব সন্ত্রাসের বাইরে আর কিছু পাওয়া যাবে, তা জাতি বিশ্বাস করে না। এই সন্ত্রাস রোধে যে পূর্ব পরিকল্পনা এবং কার্যক্রম গ্রহন করা দরকার ছিল, তা করা হয়নি। গণজাগরণ মঞ্চের দাবি ছিলো যুদ্ধাপরাধী সংগঠন জামায়াত শিবিরকে সাংগঠনিক ভাবে বিচারের আওতায় এনে তাদের নিষিদ্ধ করতে হবে। জঙ্গীবাদের অর্থায়নের উৎসগুলো খুঁজে বের করে সেগুলো বন্ধ করার দাবি ছিলো। আরো দাবি ছিলো, সারাদেশে আইনশৃংখলা বাহিনীর বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে সকল সন্ত্রাসী আস্তানা ধ্বংস, অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করতে হবে। আমরা বিশ্বাস করি, সময়মতো এই পদক্ষেপগুলো নেয়া হলে স্বাধীনতা বিরোধীদের এমন আস্ফালন জাতিকে দেখতে হতো না।

আমরা সরকারের কাছে এই দাবিগুলো পূনর্ব্যক্ত করছি এবং অবিলম্বে পদক্ষেপ নেয়ার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি।

উপস্থিত গণমাধ্যমের সম্মানিত সদস্যবৃন্দ,
আপনারা লক্ষ্য করেছেন যে, যুদ্ধাপরাধীদের সমর্থকরা বিভিন্ন মিডিয়ার মাধ্যমে গুজব তৈরি, মিথ্যাচার এবং উস্কানি অব্যাহত রেখেছে। তারা গণজাগরণ মঞ্চ সম্পর্কে কুৎসা রটনার পাশাপাশি বিভিন্ন মিথ্যা সংবাদ ও গুজব প্রচার করছে। এ ব্যাপারে আমরা দৃঢ়তার সঙ্গে ঘোষণা করতে চাই, গণজাগরণ মঞ্চ তার যাত্রা বলিষ্ঠভাবে অব্যাহত রাখবে। দেশ থেকে যুদ্ধাপরাধের রাজনীতিকে চিরতরে উচ্ছেদ না করা পর্যন্ত আমরা থামব না। দেশ ও মাটির যে দায় আমাদের কাঁধে এসেছে, সেই দায় না মিটিয়ে গণজাগরণ মঞ্চ তার যাত্রাপথ থেকে বিচ্যুত হবে না। হুমকি দিয়ে আমাদেরকে দাবিয়ে রাখা যাবে না। দেশের জন্য প্রাণ উৎসর্গ করা তরুণরা এসব হুমকি ধামকিকে তোয়াক্কা করে না।

আপনাদের মাধ্যমে আমরা দেশবাসীকে আশ্বস্ত করতে চাই, যে কোনো পরিবেশ ও পরিস্থিতিতে গণজাগরণ মঞ্চ তার কার্যক্রম অব্যাহত রাখবে। তাই ইতোমধ্যেই গণজাগরণ মঞ্চ তার সাংগঠনিক ভিতকে আরও শক্তিশালী করেছে। যুদ্ধাপরাধীদের দোসরদের যেকোনো চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্র রুখে দিতে সাধারণ জনতার কাতার থেকে আমরা আগের মতোই সাহসী পদক্ষেপ নিয়ে সংগ্রাম অব্যাহত রাখব।Image

প্রিয় সাংবাদিক বন্ধুরা,
আমাদের ধারাবাহিক সংগ্রামের অংশ হিসেবে, আমরা নতুন কর্মসূচী ঘোষনা করছি।

১.
সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতির বাসভবনে হামলা, আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনালের প্রসিকিউটরবৃন্দ এবং মামলার সাক্ষীর বাড়িতে হামলা, মুক্তিযোদ্ধা হত্যা, প্রগতিশীল গণমাধ্যম ও গণমাধ্যমকর্মীদের উপর হামলা, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রগতিশীল মানুষদের উপর হামলা ও প্রাণনাশের হুমকির প্রতিবাদে এবং অবিলম্বে গনজাগরণ মঞ্চের ৬ দফা দাবি বাস্তবায়নের দাবিতে আগামী ২ নভেম্বর শনিবার বিকেল ৩টায় শাহবাগ প্রজন্ম চত্বরে গণজাগরণ মঞ্চের উদ্যোগে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।

২.
ইতোমধ্যে আপনারা জানতে পেরেছেন কুখ্যাত আলবদর নেতা আশরাফুজ্জামান খান ও চৌধুরী মাইনুদ্দিনের মামলার রায়ের তারিখ ঘোষনা করেছে ট্রাইব্যুনাল। ৩ নভেম্বর রবিবার রায় ঘোষনার দিন সকাল দশটা থেকে প্রতিবারের মত এবারও প্রজন্ম চত্বরে অবস্থান নেবে গণজাগরণ মঞ্চ।

৩.
এরপর আগামী ৯ নভেম্বর শনিবার বিকাল ৩টায় প্রজন্ম চত্বরে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের রায় দ্রুত কার্যকর ও জামায়াত শিবির নিষিদ্ধের দাবিতে অনুষ্ঠিত হবে এক ছাত্র-শিক্ষক সমাবেশ।

গণজাগরণ মঞ্চের ঘোষিত সমাবেশে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বলীয়ান সর্বস্তরের জনসাধারণকে উপস্থিত থাকার উদাত্ত আহবান জানাচ্ছি।

সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ।
জয় বাংলা।

ডা. ইমরান এইচ সরকার
মুখপাত্র
গণজাগরণ মঞ্চ
১৬ কার্তিক, ১৪২০
৩১ অক্টোবর, ২০১৩

Republished by/bobbyjosephpereira/our71bd.

Translated in English

Across party – continued terrorist camp tandabera ganajagarana theater ‘s press conference

Dear brothers and sisters were present , asasalamu alaikuma . Image

You know , the political agenda chadmabarane period from 6 October evening again in the spirit of independence and the start of the worst attacks on people .

Ganajagarana stage of the political program of the crimes against humanity of the people behind our cherished terrorists attacked the residence . Kader Mollah appeal the judgment of the Appellate Division of the Supreme Court of Justice in the senior Sinha , Chief Prosecutor of the International Criminal Tribunal prosecutor Golam Arif Tipu and Turin have been attacked Afroza home . Even in front of his place of residence of the Chief Justice is trying to blast . The International Criminal Tribunal geiteo hands of terrorists bomb blast . The violence is clearly an attack on the judiciary to counter ghrnya activities .

Delwar Hossain Sayedee witness in the case against war camp known terrorists or heroes Mahbubul Alam and his family into the house tandaba ‘s murder . In response to the attack on the Parliament, the former commander of the heroic freedom fighters died in Magura district of Ali Reza Khan .

The Prime Minister’s residence , town hall , in front of , in front of the Election Commission and the Office of the Communist Party of Bangladesh across the country , including many government and private offices and the offices of the bomb and arson have been .

The seventy- TV , the TV , the TV estuaries , Gazi TV set has several media nipe office bomb . The police , SA TV set , some of the television channels without having a car bomb Goal chumreche Islamic terrorists camp . Has been attacked on sambadakarmidera . Private TV channels aratibhi of a serious journalist were injured , seriously injured and are in hospital in seventy- television journalist Zakaria .

It is now clear that the type of attack , lyabastu hamalakaridera the judiciary , who are successfully using the Special Tribunal yuddhaparadhera world record of the trials have been set up , and the 4 years after the liability sodhera sacred duty to the nation kalankamukta shoulder lift .

We think that the country’s ongoing political agenda behind the crime against humanity of those responsible for the breach of the law is being attacked .

The attack has raised concerns in the ganajagarana stage and condemned the attack and demanded punishment for those responsible is an example .

Hello Friends,
Tandaba is not an isolated incident in this country . War Raider and some of them can be found uttarasuridera from the terror , the people do not believe . This is to prevent terrorism in the planning and activities that need to be taken , it is not . Ganajagarana theater in the war against organized sibirake organizational justice in a way that will make them . Jangibadera financial utsagulo finds that they were closing . It was further claimed that , across ainasrnkhala special operation forces and destroy all the terrorist Dormitory , recovered illegal weapons and terrorists will be arrested . We believe that , in time , if the opponents have taken these steps to see that the nation was not bragging .

We ‘re from the government and the dabigulo punarbyakta call for immediate action .

Respected members of the media ,
I have noticed that our supporters through a variety of media to create rumors , lies and inciting continued . Ganajagarana stage they speak evil of false news and rumors have been in circulation as well . However, we would like to affirm , ganajagarana balisthabhabe stage of his journey will continue . War politics permanently evicted from the land until we do thamaba . He should come to our country and the liability , the liability does not detract from the Settlement ganajagarana stage of its routes . With the threat can not overpower us . For a life dedicated to the youth does not fly in the face of these threats dhamakike .

We want to assure you desabasike , the environment and the situation will continue ganajagarana stage of his activities . It has already ganajagarana stage of its organizational bhitake more powerful . Dosaradera any political intrigue and conspiracy against the general public in Qatar , we shall continue to strive to bring the same bold step . Image

Dear journalist friends ,
As a part of our series , we ‘re announcing a new program .

1 .
Residence in the Appellate Division of the Supreme Court of Justice , the International Criminal Tribunal prasikiutarabrnda and witnesses in the case of attack , the murder , attacks on the progressive media and ganamadhyamakarmidera , the progressive people of conscience to protest the threat of attack and to kill and to demand the immediate implementation of the next ganajagarana theater 6 -point demand Saturday , November 3 at the premises ganajagarana generation Promising protests will be held at theater .

The .
In the meantime, you have to know the leader of the infamous March Ashrafuzzaman Khan and the date of the announcement of the verdict of the tribunal mainuddinera . 3 November Sunday morning announcing the ten generations from the premises of the location of the new platform will ganajagarana .

3 .
Saturday, November 3 at 9 pm the next generation of fast, efficient and political premises of the camp is demanding the trial will be held in the student – teacher meeting .

Ganajagarana theater assembly declared the conscience of the public to attend baliyana Desh humble privilege to call .

Thank you .
Bengali win .

Said . Imran calls the
Mouth
Ganajagarana stage
Kartik 16 , 14 and 0
31 October 013

Republished by/bobbyjosephpereira/our71bd.

How ? People’s Republic of Bangladesh / কি উপায়ে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ ?

People’s Republic of Bangladesh, How it’s possible ?

In the south Asia, Bangladesh is a country where people’s of the country is killing in front of the national security force (Police). So how a citizen of the Bangladesh will say that i am safe in my country. Each an every people have their own rights on their own country as a citizen.Moreover, Every people have their rights to show their opinion. Every government for the people of the people by the people.

Police are working as a legal terrorist. Political parties are using man power as birds. They are realizing the for mobilization but opposite parties are hunting them. It’s call People’s Republic of Bangladesh ?

It’s can not be a secure place for any one !

Express your opinion and fight for rights.

Our71/bobbyjosephpereira

Void lifetime prison judgment demand death penalty.

মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত বিএনপি নেতা আব্দুল আলীমের আমৃত্যু কারাদণ্ডের রায় গণজাগরণ মঞ্চে পৌঁছানোর সঙ্গে সঙ্গেই বিক্ষোভে ফেটে পরেন গণজাগরণ মঞ্চের কর্মীরা। এ রায়ের প্রতিবাদে শাহবাগে বিক্ষোভ মিছিল করে তারা।
Image

রায় ঘোষণার পর প্রতিক্রিয়ায় গণজাগরণ মঞ্চের কর্মীরা বলেন, ‘এ রায় আমরা প্রত্যাখান করলাম।’

গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ডা. ইমরান এইচ সরকার সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা যে প্রত্যাশা নিয়ে আন্দোলন করছি তা পূরণে ব্যর্থ হয়েছে ট্রাইব্যুনাল । আমরা কোনভাবেই বিশ্বাস করি না গণহত্যা, ধর্ষণ, অগ্নিসংযোগ ও বাধ্যতামূলক দেশান্তরসহ অধিকাংশ অভিযোগ প্রমাণিত হওয়া সত্ত্বেও কারাদণ্ড হতে পারে।’

তিনি বলেন, ‘মৃত্যুদণ্ডের বাইরে যে রায় ঘোষিত হয়েছে তা হতাশাজনক। গণজাগরণ মঞ্চ এ রায় প্রত্যাখান করেছে। আর রায়ের বিরুদ্ধেই আমাদের এ বিক্ষোভ মিছিল।’

তিনি আরও বলেন, ‘রায়ের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের দ্রুত আপিলের দাবিতে বুধবার সন্ধ্যা ৬টায় বিক্ষোভ ও মশাল মিছিল করবে গণজাগরণ মঞ্চ।’

প্রতিক্রিয়ার পরপরই তিনি মিছিল নিয়ে টিএসসি অভিমুখে যাত্রা করেন। বিক্ষোভ মিছিলটি দোয়েল চত্বর দিয়ে রূপসী বাংলা হোটেল পর্যন্ত যাবে। এরপর আবার গণজাগরণ মঞ্চে ফিরে আসবে।

Google Translate:

Leader du BNP Abdul Alim accusé de crimes contre l’humanité d’emprisonnement amrtyu ganajagarana protestations de la scène pour arriver bientôt s’estomper personnel du théâtre ganajagarana . Manifestations de protestation Roy à laquelle ils sont à proximité.

Après l’annonce du verdict en réponse personnel du théâtre ganajagarana dit: « Les jugements que nous la rejetons .

Porte-parole du théâtre Ganajagarana dit. Imran appelle le gouvernement dit: « Nous sommes dans l’attente qu’il ne répondait pas au Tribunal. Nous ne croyons pas du génocide , le viol , l’incendie criminel et condamné à la desantarasaha obligatoire dont la plupart peuvent être prouvé ” .

Il a dit , « la mort a été déclaré qu’il était frustrant. Le tribunal a rejeté stade ganajagarana . Dans nos manifestations contre le verdict .

Il a dit , ‘ dans l’appel rapide contre les manifestations antigouvernementales dirigeantes mercredi à 18 heures et mettra en scène des rallyes torche ganajagarana .

Après avoir défilé dans la direction de la tiesasi de réponse. Démonstrations Doyela dans la cour de l’hôtel est Ruposhi Bengali . Je serai de retour sur scène ganajagarana .

Collected/republished/bobbyjosephpereira/our71bd

Take quick action to hang and ban Jammat Islam Bangladesh.

যুদ্ধাপরাধের দায়ে সাজাপ্রাপ্ত যুদ্ধাপরাধীদের বিচার দ্রুত নিষ্পত্তি, কাদের মোল্লার ফাঁসির রায় দ্রুত কার্যকরসহ সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে জামায়াত-শিবিরকে নিষিদ্ধের দাবি জানিয়েছে গণজাগরণ মঞ্চ।

শুক্রবার বিকেলে যুদ্ধাপরাধের রায় দ্রুত কার্যকরসহ জামায়াত-শিবির নিষিদ্ধের দাবিতে গণ-সমাবেশ থেকে এ দাবি জানানো হয়।

গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ডা. ইমরান এইচ সরকার বলেন, আদালত জামায়াতকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে রায় দিয়েছেন। নির্বাচন কমিশন এরইমধ্যে যুদ্ধাপরাধীদের ভোটাধিকার রহিত করে তাদের নির্বাচনের অযোগ্য ঘোষণা করেছে। তাদের নিষিদ্ধ করতে আর বাধা কোথায়?Image

ইমরান বলেন, সরকারের আন্তরিকতা নিয়ে আমরা কোনো প্রশ্ন তুলতে চাই না। কারণ প্রধানমন্ত্রী তার প্রতিশ্রুতি রক্ষা করে সংসদের প্রথম অধিবেশনে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনাল বিল উত্থাপন করেছিলেন। আমরা সরকারের কাছে দাবি জানাই, আদালতের রায় দ্রুত কার্যকর করে জামায়াত-শিবিরকে নিষিদ্ধ হোক।

ইমরান বলেন, আগামী বিজয় দিবস ঐতিহাসিকভাবে পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে গণজাগরণ মঞ্চ। এ উপলক্ষে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। এ ব্যাপারে গৃহীত কর্মসূচি শিগগিরই জানিয়ে দেওয়া হবে। আগামী বিজয় দিবস হবে যুদ্ধাপরাধী ও জামায়াত-শিবির মুক্ত বাংলাদেশের সত্যিকারের বিজয় দিবস।

জামায়াত-শিবির নিষিদ্ধ করা জনতার দাবি হিসেবে উল্লেখ করে এ ব্যাপারে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানান তিনি।

ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শাহরিয়ার কবির বলেন, জামায়াতকে নির্বাহী আদেশেই নিষিদ্ধ করা যায়। এ জন্য আদালতে যাওয়ার প্রয়োজন নেই। যে সংগঠনটি রাষ্ট্রদ্রোহী কর্মকাণ্ডে লিপ্ত ও সংবিধান লঙ্ঘনকারী, তাদের নিষিদ্ধ করার জন্য বিদ্যমান সন্ত্রাস নির্মূল আইনই
যথেষ্ট।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী যেখানে জামায়াত-শিবির নিষিদ্ধ করার ঘোষনা দেন, সেখানে কেন এতো দেরি হচ্ছে, সেটি বোধগম্য নয়। আমরা জানতে চাই, সরকারের ভেতরে আর কারা আছেন, যারা প্রধানমন্ত্রীর চেয়েও ক্ষমতাধর?

সমাবেশে অন্য বক্তারা বলেন, কাদের মোল্লার রায়ের বিরুদ্ধে জনতা একদিন রাজপথে নেমে এসেছিল। দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলেছিল এই শাহবাগে। এরই ফলশ্রুতিতে আইন সংশোধিত হয়ে রাষ্ট্রপক্ষের আপিলের সুযোগ সৃষ্টি হয়। গত ১৭ সেপ্টেম্বর আপিল বিভাগ কাদের মোল্লার বিরুদ্ধে যে চূড়ান্ত ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন, তা অবিলম্বে কার্যকর করতে হবে।

বক্তারা আরো বলেন, আইনের কোনো ফাঁক ফোঁকর দিয়ে যেন দণ্ডিতরা বের হয়ে যেতে না পারে। যদি কেউ আইনের ফাঁক ফোঁকর গলে বের হয়ে যায়, জনগণ তাহলে ঘরে বসে থাকবে না। আগের চেয়েও বড় আন্দোলন গড়ে তুলবে।

বক্তারা বলেন, যে সংগঠন রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষণা করে, আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে হরতাল দিয়ে দিন দুপুরে মানুষ খুন করে, তাদের এ দেশে রাজনীতি করার অধিকার নেই। তাদের অবিলম্বে নিষিদ্ধ করে দেশকে কলঙ্কমুক্ত করতে হবে।

গণজাগরণ মঞ্চের সংগঠক মারুফ রাসুলের সঞ্চালনায় গণ-সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন, শিক্ষাবিদ শ্যামলি নাসরিন চৌধুরী, সাবেক ছাত্রনেতা ইসমাত কবির গামা, মুক্তির উদ্যোগের সমন্বয়কারী সোহরাব উদদীন, গণসংগীত শিল্পী মাহমুদ সেলিম, সুফিবাদের নেতা শাহ আবদুল বাতেন, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ঝুনা চৌধুরী, শ্রমিক নেতা মঈনুল আহসান জুয়েল, খেলাঘরের সাধারণ সম্পাদক মোখলেছুর রহমান সাগর প্রমুখ।

এছাড়াও বিভিন্ন মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক সংগঠন, ছাত্র সংগঠন ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের কর্মীসহ নানা শ্রেণী-পেশার মানুষ সমাবেশে যোগ দেন।

বিকেল পাচটার দিকে সমাবেশ শুরু হয়ে চলে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা পর্যন্ত।

Translated by Google translate.

Condamné à disposer rapidement de crimes de guerre de classe , qui ont fait une condamnation à mort rapide contre karyakarasaha comme une organisation terroriste – a été interdit sibirake stade ganajagarana .

Vendredi après-midi dans la guerre contre karyakarasaha – demande de masse dans le camp – a été à l’assemblée.

Porte-parole du théâtre Ganajagarana dit. Imran H. gouvernement , le tribunal a jugé que jamayatake comme une organisation terroriste . Pendant ce temps, le gouvernement a aboli le droit de vote dans leurs élections , la commission électorale a disqualifié . L’interdiction est pour les prévenir?

Imran dit la sincérité du gouvernement , nous ne voulons pas prendre de questions. En raison de son engagement pour la protection de la première session du Parlement de la Charte internationale du Tribunal pénal a été soulevée. Nous exigeons du gouvernement, qui est efficace contre les jugements rapides – sibirake est interdite.

Imran dit que les célébrations de la Journée de la Victoire historiquement décidé stade ganajagarana . Toutes les préparations ont été réalisées à l’occasion . Le programme est acceptée seront avisés sous peu. Jour de la Victoire est la prochaine guerre , et politique – Camp de jour est la vraie victoire .

Party – comme demandé par le public sera autorisé à camper dans le gouvernement de prendre des mesures efficaces , at-il dit .

Shahriar Kabir a déclaré que le courtier en charge de l’élimination du bourreau , le adesei jamayatake est interdite. Je n’ai pas besoin d’aller au tribunal . Rastradrohi organisation engagée dans des activités qui violent la Constitution , qui interdit à disposition pour l’éradication du terrorisme ainai
Assez.

Il a dit que le parti – le camp est annoncé , il était trop tard , il n’est pas compréhensible. Nous voulons savoir qui nous sommes à l’intérieur du gouvernement, le premier ministre a même ksamatadhara ?

Les autres orateurs de la réunion , la partie contre laquelle le jugement a rajapathe descendaient . Ce mouvement fait Durbar à proximité. La loi révisée devrait aboutir à la création de l’appel. La Chambre d’appel le 17 Septembre qui ont fait l’exécution finale de l’Ordre , qui est en vigueur immédiatement.

Les intervenants ont également agir comme une lacune dans phomkara danditara ne peut pas sortir . Si quelqu’un peut trouver les lacunes phomkara fond, il y aura des gens dans la salle . Construire un mouvement plus grand que jamais .

Cependant, l’organisation a déclaré le djihad contre l’Etat, le tribunal a statué contre l’affrontement midi avec l’homme assassiné , qui est dans le vrai. Ils seront immédiatement bannis pays kalankamukta .

Il était sancalanaya ganajagarana théâtre organisateur Franklin Street – également pris la parole lors du rassemblement , les éducateurs , syamali Nasreen Chowdhury , ancien leader étudiant de la gamma isamata , Sohrab udadina coordinateur de l’initiative , le groupe artiste musique Mahmud Salim , l’arthrite Shah Abdul à soufisme , un vétéran de la diversité culturelle , le groupe dirigeant travailliste Ahsan Jewel , khelagharera mokhalechura la mer en général.

L’organisation a également মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক , les organisations étudiantes et les organisations culturelles et les défenseurs de la classe – les gens de carrière ont participé au rassemblement .

Pacatara au début de la réunion jusqu’à sept heures du soir .

Collected/republished/bobbyjosephpereira/report/our71bd.

Unidentified miscreants attacked on online activators.

Image

police said Arif Nur was stabbed with sharp weapons under the over bridge at Paribagh, near Shahbagh, around 11pm Friday. Mancha organisers have blamed activists of Jamaat-e-Islami and its student wing Islami Chhatra Shibir for the attack on Arif. He sustained injuries on his head and several parts of the body.He was admitted at Dhaka Medical College and Hospital (DMCH), where doctors said he was out of danger.

Udichi Shilpi Goshthi’s central committee member Arif has been playing an active role in the movement led by Ganajagaran Mancha to press for maximum punishment for the war criminals and for a ban on the Jamaat.

DMCH police outpost Inspector Mozammel Haque told Arif had just gotten out of his friend’s house when a microbus stopped in front of him under the over bridge. Five people got out of the vehicle and started stabbing Arif.

They fled after people from the nearby CNG refuelling station rushed there, Haque said.

One of the Ganajagaran Mancha organisers, Maruf Rosul told “The attackers at first ridiculed Arif over some of the slogans of Shahbagh movement. Then they attacked him as he tried to run.”

A blood soaked Arif was taken to Health and Hope Hospital at Panthapath and he was later transferred to DMCH.

The assailants did not take away Arif’s mobile phone and money, Inspector Mozammel Haque said.

After visiting Arif at DMCH, Mancha spokesperson Imran H Sarker told reporters that they would take out a torch procession on Saturday evening to protest the attack.

Maruf Rosul held Jamaat and Shibir activists responsible for carrying out the attack. “We are sure that it was their doing, because they mocked the slogans we used during our movement.”

Youths, bloggers and online activists in February had started a demonstration at Shahbagh demanding death penalty for Jamaat leader and war crimes convict Abdul Quader Molla after he was handed down a life imprisonment by the International Crimes Tribunal.

The demonstration led by Ganajagaran Mancha very soon turned into a massive movement with support from all walks of life for maximum punishment to all war criminals and a ban on Jamaat.

Some days after the movement begun, Mancha activist and blogger Rajib Ahmed Haider was killed near his home at the capital’s Mirpur. Several other bloggers were also attacked in recent weeks.

Collected/republished/Bobbyjosephpereira/our71bd.